মায়ের কষ্টে ছেলে অসুস্থ, মাকে দাফনের পর মারা গেলেন ছেলেও

নিউজ ডেস্ক , আমাদের ভোলা.কম।

মা হনুফা খাতুন বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান শনিবার রাত ১১টায়। পরদিন মাকে দাফন করার ঠিক এক ঘণ্টা পর হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান বড় ছেলে শহিদ উল্লাহ।

মায়ের কোলে হেসে খেলে বড় হওয়া সেই ছেলে চিরনিদ্রায় শায়িত হয়েছেন মায়ের পাশেই।

হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার সোনাপুর আটিয়া বাড়িতে।

হনুফা খাতুন পৌর সোনাপুর গ্রামের আটিয়া বাড়ির বাদশা মিয়া আটিয়ার স্ত্রী।

হনুফা খাতুনের ছোট ছেলে শফিক উল্লাহ জানান, শনিবার রাত ১০টার দিকে তার বসতঘরে থাকা অসুস্থ মাকে দেখতে গিয়ে হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হন বড় ভাই শহিদ উল্লাহ। এ সময় বাড়ির লোকজন শহিদ উল্লাহকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যেতে বলেন। রাত বেশি হওয়ায় রোববার সকালে ঢাকা নেয়ার জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়।

শনিবার রাত ১১টায় বার্ধক্যজনিত কারণে আমার মা হনুফা খাতুন মারা যান। রোববার সকাল ১০টায় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করে ঘরে আসার ঘণ্টাখানেক পর বড় ভাই শহিদ উল্লাহ মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

বিকেল ৪টায় মায়ের কবরের পাশে ছেলে শহিদ উল্লাহ দাফন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পরিবার।

এদিকে মা ও ছেলের এমন মৃত্যুতে পরিবার ও গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

মে ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« এপ্রিল  
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।