চরফ্যাসন পৌর নির্বাচনে তরুণ প্রজন্মের কাউন্সিলর প্রার্থী মুকুল

স্টাফ রিপোর্টার।

আসন্ন চরফ্যাসন পৌরসভা নির্বাচনে তরুণ প্রজন্মের কাউন্সিলর প্রার্থী সাইফুল ইসলাম মুকুল কে নিয়ে ভোটারদের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ দেখা দিয়েছে। তাকে নিয়ে এলাকার সব তরুণ ভোটারদের আগ্রহের কমতি নেই।

জানাযায়, চরফ্যাসন পৌরসভা ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ পরিবারের সন্তান সে। ছাত্রজীবন থেকে এখন পর্যন্ত অপেশাদার সাংবাদিকতায় যুক্ত রয়েছেন। বিভিন্ন সময়ে তার লেখায় তুলে ধরেছেন সমাজের অসংগতি ও সম্ভাবনার দিক। সাংগঠনিক দক্ষতাও রয়েছে তাঁর। চরফ্যাসন প্রেসক্লাবের সাহিত্য সম্পাদক ও চরফ্যাসন নিউজের প্রকাশক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াশোনা শেষে কর্মজীবনে পা রেখেছেন বেশ আগে থেকেই। কর্মদক্ষতা ও চতুরতা দিয়েই গড়েছেন যুগোপযোগী ই-টিকেটিং প্রতিষ্ঠান “জলযাত্রা”। এমনকি কর্মসংস্থান দিয়েছেন প্রায় অর্ধশত শিক্ষিত যুবকের।

বর্তমানে লঞ্চ ই-টিকেটিং কোম্পানি “জলযাত্রা লিমিটেড” এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হিসাবে দায়িত্বে আছেন।

আলাপকালে চরফ্যাসন পৌরসভা ৭ নম্বর ওয়ার্ডের একাধিক ব্যাক্তিরা বলেন, এই অল্প বয়সে জনপ্রতিনিধি না হয়েও মুকুল গরীব অসহায় মানুষকে সহযোগীতা করে যাচ্ছে। সে হিসাবে মুকুল যদি আমাদের কাউন্সিলর হয় এলাকর উন্নয়ন সহ সকলের উপকার হবে। এছাড়াও সে করেনাকালীন সময়ে খেটে-খাওয়া মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে।

এবিষয়ে আলাপকালে সাইফুল ইসলাম মুকুল বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকেই সমাজের অবহেলিত জনগোষ্ঠী ও এলাকার মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। বিভিন্ন সময়ে ব্যক্তিগত উদ্যোগে সামাজিক কর্মকান্ডে যুক্ত ছিলাম। সেবার পরিধি বাড়াতে কাউন্সিলার পদে নির্বাচন করবো। আমি নির্বাচিত না হলেও এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে ৭ নম্বর ওয়ার্ডকে উন্নত জনপদ হিসেবে গড়ে তুলবো। আমি অসম্ভব প্রতিশ্রুতি দিতে চাই না। আমি আমার সামর্থ্য ও সক্ষমতা অনুযায়ী সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাব।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

জুলাই ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।