গ্রীস’র সর্ববৃহৎ ব্যবসায়ী সংগঠনের সভাপতি বরিশালের কৃতিসন্তান জহির

বিশেষ প্রতিবেদক: আমাদের ভোলা।

গ্রীসের ব্যবসায়ীদের সর্ববৃহৎ ও জাতীয় সংগঠন ‘এথেন্স চেম্বার অব ট্রেডসমেন’ এর অভিবাসী ও আন্তর্জাতিক বিভাগের নির্বাচিত সভাপতি বরিশালের কৃতি সন্তান মোঃ জহির ডাকুয়া। প্রায় দেড় লাখ ব্যবসায়ী সদস্য নিয়ে গঠিত এই সংগঠন গ্রীসের একটি জাতীয় সংগঠন। এর আওতায় শুধমাত্র অভিবাসী ব্যবসায়ীদের প্রায় ১১ হাজার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে যার মধ্যে বাংলাদেশী ব্যবসায়ী রয়েছেন ৪’শ এর বেশী।
১৯২৫ সালে ৪১ সদস্য বিশিষ্ট ৯ পরিচালক নিয়ে গঠিত হয় এথেন্স চেম্বার অফ কমার্স (টেডার্স ম্যান)। কয়েক দফা বেড়ে বর্তমানে সদস্য সংখ্যা দেড় লাখ। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান , রেস্টুরেন্ট, মিনি মার্কেট, প্রসাধনী, গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি, সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান রয়েছে এই সংগঠনের আওতায়। এমন একটি সংগঠনে বাংলাদেশী ব্যবসায়ী ও বরিশালের কৃতি সন্তান জহির ডাকুয়া গুরুত্বপূর্ণ পদে নির্বাচিত হয়েছেন। এতে গ্রীসে থাকা বাংলাদেশীরা অনেক সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন।
জহির ডাকুয়া ১৯৭২ সালে উজিরপুরের হস্তিশুন্ড গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। এরপরে ১৯৯৪ সালে তিনি বিদেশে পাড়ি জমান। জার্মান, ফ্রান্স, সুইজারল্যান্ড, ইটালি, ব্রুনাই, সিঙ্গাপুর, রাশিয়া, রোমানিয়া, বুলগেরিয়া সহ বেশ কয়েকটি দেশে কাজ করেছেন তিনি। এরপর গ্রীসে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। তিনি ইংলিশ, গ্রীস, এলিনিকা, সুইচ, জার্মানি, থাই, ইতালিয়ান ও রোমানিয়া ভাষায় কথা বলতে পারেন। যে কারনে প্রবাসীদের সার্বিক সেবা প্রদান তার জন্য অনেক সহজ।
গ্রীসের প্রাণকেন্দ্রে একটি অত্যাধুনিক রেস্টুরেন্ট, ট্রাভেল এজেন্সি, ব্রাক ব্যাংকের মানিট্রান্সফার ব্যাবসা সহ একটি এনজিও প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। সামাজিক কার্যক্রমেও পিছিয়ে নেই তিনি। যেকোন ধরনের আইনি সহায়তা, চিকিৎসা সহায়তা সহ বাংলাদেশী প্রবাসীদের কোন বিপদ শুনলেই ছুটেযান জহির।
বর্তমানে গ্রিসে ৩৫ হাজারের মত বাংলাদেশি স্থায়ীভাবে বসবাস করিছেন। গ্রীস প্রবাসীদের অধিকার আদায়ের লক্ষে গ্রিসের বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সরকারের সাথে জোরালোভাবে আলোচনা করে যাচ্ছেন জহির ডাকুয়া। বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাবারসমূহকে সর্ব ইউরোপে পরিচিত করার জন্য আয়োজন করেছিলেন Athens Multicultural program-2019 | গ্রীষ্মে বাংলাদেশি কৃষ্টিকালচার জানান দিতে আয়োজন করেছিলেন পিঠা মেলা। গ্রীস প্রবাসী বাংলাদেশীদের কে বিনোদন দিতে প্রতিবছর আয়োজন করেন বনভোজন। এমনকি বাংলাদেশের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদি এর পরিচালক হানিফ সংকেত একবার গ্রীসে গিয়েছিল জহির ডাকুয়ার আমন্ত্রণে।
বরিশাল কাশিপুরে জহির ডাকুয়ার শশুর বাড়ি। দুই ছেলের বাবা তিনি। স্ত্রী সন্তান নিয়েই এখন গ্রীসে বসবাস করছেন। অনেক দিনে দেশে আসা হয়নি তার। কিন্তু প্রতিটিক্ষণ তিনি দেশের মাটি ও মানুষকে ভালবাসেন। শুধু তাই নয়, বিদেশের মাটিতে বসেও এলাকার মানুষের কথা ভেবেছেন তিনি। ২০০৪ সালে প্রতিষ্ঠা করেন উজিরপুরে পশ্চিম হস্তিশুন্ড চৌরাস্তা জামে মসজিদ। সিদ্দিক শিকদার বাড়ি থেকে বোহরকাঠি সড়ক পর্যন্ত সংযোগ সড়কটি নিজ প্রচেষ্টায় সরকারীভাবে হেরিংরোন করান। এরপরে তিনি এই রাস্তাটি পিচঢালাই এর চেষ্টা চালালে বর্তমানে তা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
জহির ডাকুয়া বলেন, গ্রীসে আমার সবকয়টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানই ভালো চলছে। বাংলাদেশী প্রবাসীদের পাশে থাকার চেস্টা করি সব সময়। গ্রীস সরকারের সাথে ভালো যোগাযোগ থাকায় আমার দেশী কেউ কোন সমস্যায় পড়লে আইনি সহায়তা দিতে পাড়ি খুব সহজেই। তাছাড়া বাংলাদেশী প্রবাসীদের যেকোন প্রয়োজনে সাধ্যমত পাশে থাকার জন্য প্রস্তুত আছি।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

জুলাই ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।