ভোলায় যুবলীগ নেতা হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

কাজী মহিবুল্লাহ আজাদ, আমাদের ভোলা।

ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদ আলম টিটুকে মাঝ নদীতে গুলি করে হত্যার ঘটনায় সকল আসামিকে দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করেছে জেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন। সোমবার (২৯ নভেম্বর) সকালে ভোলা প্রেসক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করেন তারা।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে দৌলতখান উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী একেএম নাছির উদ্দিন নান্নু (নৌকা প্রতীক) বিজয়ী হন। এরপর গত ২৬ নভেম্বর ইউপি চেয়ারম্যান একেএম নাছির উদ্দিন নান্নুসহ কয়েকজন ইউপি সদস্য নির্বাচনী এলাকার জনগণের সাথে দেখা করতে যান। পরে বিকেলে ট্রলার যোগে ভোলা সদরের উদ্দেশে ফেরার সময় মাঝনদীতে চেয়ারম্যানকে লক্ষ্য করে গুলি বর্ষণ করা হয়। ওই গুলিতে নিহত হন যুবলীগ নেতা খোরশেদ আলম টিটু। ওই রাতেই জামাল উদ্দিন সহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ভাই মো. হানিফ ভূট্ট। কিন্তু ঘটনার ৩-৪ দিন হয়ে গেলেও গ্রেফতার হয়নি প্রধান আসামি জামাল উদ্দিন চকেটসহ অন্যান্যরা। এখন পর্যন্ত এ মামলার একজন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
টিটু হত্যা মামলার সকল আসামিকে দ্রুত গ্রেফতার করা না হলে কঠোর আন্দোলনের ঘোষণা দেন মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণকারীরা।
এ সময় বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকিব, সচেতন নাগরিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলাম শফি, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহ আলী নেওয়াজ পলাশ, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরুননবি,মদনপুর ইউনিয়নের নব র্নিবাচিত চেয়ারম্যান একেএম নাছির উদ্দিন নান্নু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আবিদুল আলম প্রমুখ।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

জানুয়ারি ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« ডিসেম্বর  
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।