জঙ্গি হামলায় নিহত বিচারক সোহেলকে ভোলায় শ্রদ্ধাঞ্জলি

ইয়াছিনুল ঈমন, আমাদের ভোলা .কম

ভোলায় জেএমবি’র বোমা হামলায় নিহত বিচারক সোহেল আহম্মেদ এর ১৩ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে শোক র‌্যালী, স্মরণসভা, কবর জিয়ারত ও দোয়া-মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার সকালে শহরের কালীবাড়ি রোডস্থ নিহতের কবরে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান ভোলার জেলা ও দায়রা জজ মো: ফেরদৌস আহমেদ। আদালত থেকে একটি শোক র‌্যালী বের করা হয়। পরে মরহুমের চাচাতো ভাই সাবেক সিভিল সার্জন ডাক্তার ফরিদ আহম্মেদ বাসভবনে দোয়া ও মিলাদ অনুষ্ঠিত হয়। পরে বিচারক সোহেল আহমেদ স্মরণে স্মরনসভা অনুষ্ঠিত হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইবুন্যাল আদালতের জজ আতোয়ার রহমান, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ হাবিবা মন্ডল, ভারপ্রাপ্ত চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শরীফ মোঃ সানাউল হক, নিহত সোহেলের চাচাতো ভাই ডাঃ ফরিদ আহম্মদ, পিপি এডভোকেট সৈয়দ আশরাফ হোসেন লাভু, জিপি নুরুল আমিন নুরুন্নবী, এডভোকেট মোজাম্মেল হক, ভোলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট ওবায়দুর রহমান শাজাহান, এডভোকেট বশির আহম্মেদ, এডভোকেট গোলাম মোর্শেদ কিরণ, এডভোকেট এনামুল করিম, এডভোকেট আমিনুল ইসলাম বাছেদ, এডভোকেট শাহাদাত শাহীন, জজকোর্ট কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক প্রশাসনিক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ হোসেন শাহ, সাংবাদিক অমিতাভ অপু, মোঃ মনিরুল ইসলামসহ বিচারক, আইনজীবী ও বিভিন্ন পেশার প্রতিনিধিরা।
জেলা ও দায়রা জজ মো: ফেরদৌস আহমেদ বলেন, বিচারক সোহেল আহমেদ ছিলেন একজন মেধাবী, বিজ্ঞ ও দক্ষ বিচারক। কিন্তু জেএমবির বোমা হামলায় আমরা তাকে হারিয়েছি, ভোলার এ উজ্জ্বল নক্ষত্র বেচে থাকলে অনেক উর্ধ্বে যেতে পারতেন। আমরা তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।
উল্লেখ্য, ২০০৫ সালের ১৪ নভেম্বন এই দিনে ঝালকাঠিতে আদালতে যাওয়ার সময় জেএমবি’র বোমা হামলায় বিচারক সোহেল আহম্মদ নিহত হন। সোহলে আহম্মেদের বাড়ি ভোলা পৌর এলাকার কালীবাড়ি সড়কে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

আগষ্ট ২০১৯
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুলাই    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।