চরফ্যাশনে মামলা তুলে না নেয়ায় স্ত্রীকে হত্যার চেস্টা

চরফ্যাশন থেকে বিশেষ প্রতিনিধি:

স্বামীর পরক্রীয়া প্রেমে বাঁধা ও স্ত্রী কর্তৃক যৌতুক ও নারী নির্যাতন মামলা তুলে না নেয়ার কারনে গতকাল বিকালে স্ত্রীকে হত্যার উদ্যেশ্যে মারধর করে পুকুরে ফেলে চুবিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে চরফ্যাশন উপজেলার জিন্নাগড় ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের কাসেমগঞ্জ এলাকায়। আহত স্ত্রী এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।তিনি জানান, তার স্বামী মনির হোসেনের পরস্ত্রী লালসায় আসক্ত।এর প্রতিবাদ করায় বিভিন্ন সময়ে আমাকে মানষিক ও শাররিকভাবে নির্যাতনের করতো। মনির তার ছেলে মেয়েদের খোজঁখবর কিংবা কোন ভরন পোষণ দিচ্ছেনা।
তিনি বলেন, আমার স্বামী মনির হোসেন চরিত্রহীন ও একজন লম্পট প্রকৃতির লোক,সে আমাকে না জানিয়ে গোপনে নুরাবাদ হাজিরহাটের এক নারীকে বিয়ে করেন। এরপর আত্মীয়দের সহযোগীতায় আমি স্থানীয় শালিস ফয়সালার মাধ্যমে দ্বিতীয় স্ত্রীকে তালাক দেয়। কিছুদিন পরপর তালাকপ্রাপ্ত ওই স্ত্রী’র সাথে আবারও অবৈধ সম্পর্কে জড়ায়।
আমার স্বামী তাদের বাড়ির দরজাসংলগ্ন একটি পরিত্যাক্ত কাচারী ঘরে বিভিন্ন এলাকা থেকে খারাপ নারীদের নিয়ে আসতেন এবং অবৈধ কার্যকলাপে লিপ্ত হলে আমি প্রতিবাদ করলে আমাকে মারধর করতো। চরফ্যাশন থানায় তার বিরুদ্ধেএকটি যৌতুক ও নির্যাতন মামলা দায়ের করি। মামলা নং ১০/তাং ১১/১০/২০২০। আমি মামলা করলেও পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। সে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।
মামলা উঠিয়ে নেয়ার জন্য মনির আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দামকি দিচ্ছে।

গতকাল বাড়িতে এসে লাঠিসোটা দিয়ে মারধর করে বসতঘর সংলগ্ন পুকুরে ফেলে চুবিয়ে হত্যার চেস্টা চালায়।পরে সে পালিয়ে গেলে আশপাশের লোকজন উদ্ধার করে আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করে।এব্যাপারে মনির হোসেন সেল ফোনে জানান, তার বিরুদ্ধে স্ত্রীর দায়েরকৃত যৌতুক মামলাটি মিথ্যা ও বানোয়াট। মামলায় তদন্তকারী অফিসার এসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, মামলাটি এখনো তদন্তাধীন রয়েছে। আসামী গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। আশা করি সে যেখানে পালিয়ে থাকুক পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

নভেম্বর ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« অক্টোবর  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!