ব্যবহৃত কনডম ধুয়ে নতুন মোড়কে বিক্রি, উদ্ধার ৩৬০ কেজি

নিউজ ডেস্ক , আমাদের ভোলা.কম।

অভিনব এক জালিয়াত চক্র ধরা পড়েছে ভিয়েতনামের পুলিশের হাতে। ব্যবহৃত কনডম ধুয়ে শুকিয়ে পুনরায় প্যাকেটে সিল করে চলছিল বিক্রি। একটি কারখানা থেকে প্রায় তিন লাখ ৪৫ হাজার ব্যবহৃত কনডম উদ্ধার করেছে ভিয়েতনামের পুলিশ। এ ঘটনায় কারখানার মালিক ৩৪ বছর বয়সী এক নারীকে আটকও করা হয়েছে। ভিয়েতনামের রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল ভিটিভির বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

পুলিশ জানায়, আটক নারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গেছে, ব্যবহার করে ফেলে দেওয়া কনডম সংগ্রহ করে সেগুলো প্রথমে গরম পানিতে ধোয়ার পর ভালো করে শুকিয়ে প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস মাখিয়ে ভরা হতো নতুন প্যাকেটে। তারপর তা বিক্রির জন্য দোকানে চলে যেত।

অনেক দিন ধরেই ভিয়েতনামের কিছু অঞ্চলে রমরমিয়ে চলছিল এই ব্যবহৃত কনডমের ব্যবসা। গোপন সূত্রে এই জালিয়াত চক্রের খবর পেয়ে গত বুধবার ভিয়েতনামের দক্ষিণ বিন দুয়ং প্রদেশের একটি গুদামঘরে অভিযান চালায় পুলিশ। ওই গুদামে বহু ব্যবহৃত কনডম ও কনডম ধুয়ে প্যাকের পর অনেক সিল করা প্যাকেট মিলেছে। বাজেয়াপ্ত কনডমের পরিমাণ ৩৬০ কেজি, যা বড় বড় ব্যাগে ভরে ওই ঘরে রাখা ছিল।

প্রতি কেজি কনডম নতুন করে মোড়কজাত করার জন্য শূন্য দশমিক ১৭ ডলার, অর্থাৎ প্রায় সাড়ে ১৪ টাকা করে পেতেন বলে জানিয়েছেন আটক নারী।

এই কনডম জালিয়াত চক্রের কোনো আন্তর্জাতিক যোগসূত্র আছে কিনা এবং শুধু ভিয়েতনামের ভেতরেই চলত এই ব্যবসা, নাকি অন্য দেশেও পাঠানো হতো এই কনডমগুলো—পুলিশ তা তদন্ত করে দেখছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

জুন ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« মে    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।