দৌলতখানে গৃহবধূকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ, স্বামী ও শাশুড়ি আটক

দৌলতখান প্রতিনিধি, আমাদের ভোলা।

ভোলার দৌলতখানে রতনা বেগম নামে ১৯ নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী রাসেল ও শাশুড়ি নিলু বেগমের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় পুলিশ স্বামী রাসেল ও শ্বাশুড়ি নিলু বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার চরখিলফা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের রতন ব্যাপারী বাড়িত এ ঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধূ রতনা বেগম উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ফরাজী বাড়ির নসু ব্যাপারীর মেয়ে।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, ১০ মাস পূর্বে উপজেলার চরখিলা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের আলাউদ্দিনের ছেলে রাসেলের সাথে পার্শ্ববর্তী সৈয়দপুর ইউনিয়নের নসু ব্যাপারীর মেয়ে রতনার বেগমের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই গৃহবধূকে যৌতূক হিসেবে বিভিন্ন সময় স্বর্ণ অলংকার সহ টাকার জন্য তার শ্বশুর বাড়ি থেকে চাপ দেওয়া হতো। ঘটনার দিন (রবিবার) সকালে নিহত গৃহবধূ রতনা বেগম তার বাপের বাড়িতে যেতে চান। এসময় নিহতের স্বামী ও শ্বাশুড়ি যৌতুকের সূত্র ধরে গৃহবধূ রতনা বেগমকে তার বাপের বাড়িতে যেতে বাঁধা দেন। এক পর্যায়ে নিহতের স্বামী রাসেল ও শ্বাশুড়ি নিলু বেগমকে রতনাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। এ ঘটনায় দৌলতখান থানা পুলিশ হত্যাকারী রাসেল ও শ্বাশুড়ি নিলু বেগমুকে গ্রেপ্তার করেন।
দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ভোলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্ত স্বামী ও শ্বাশুড়িকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

ফেব্রুয়ারি ২০২৩
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« জানুয়ারি  
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।