চরফ্যাশনে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে কাজী ও ইমামদের ভূমিকা বিষয়ক কর্মশালা

ডেস্ক রির্পোট , আমাদের ভোলা .কম ॥
ভোলায় চরফ্যাশন উপজেলায় বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে ইমাম, কাজী  ভূমিকা বিষয়ক কর্মশালা  অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ এর সহায়তায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কোস্ট ট্রাস্ট এর সমন্বিত শিশুবিবাহ প্রতিরোধ কার্যক্রম (আইইসিএম) প্রকল্পের আওতায়  সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) চরফ্যাশন উপজেলা মিলনায়তনে  কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
কর্মশালার অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চরফ্যাশন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো: রুহুল আমিন। কোস্ট ট্রাস্টের টিম লিডার রাশিদা বেগম এর সভাপত্বিতে সভায় উপস্থিত ছিলেন চরফ্যাশন উপজেলার আনসার বিডিপি মহিলা ট্রেইনার কামরুন নাহার,মহিলা বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সিআরআই প্রকল্পের আরিফুর রহমান, এলজিসি প্রকল্পের উপজেলা কোÑ অর্ডিনেটর শরিফুল ইসলাম। সভার সঞ্চলনা করনে (আইইসিএম) প্রকল্পের উপজেলা টেনিং এন্ড মনিটরিং অফিসার  জিএস মনিরুজ্জামান। কর্মশালায় বিভিন্ন ইউনিয়নের ইমাম,কাজীরা অংশ গ্রহন করে। কর্মাশালায় বক্তারা বলেন,বাল্য বিয়ে একটি সামাজিক সমস্যা হওয়া সত্বেও বাল্য বিয়ে রোধ করা সম্ভব হচ্ছেনা। সেই ক্ষেত্রে সকল ইউনিয়নের ঈমাম কাজীদের আরো  সচেতন হওয়ার আহবান জানায়।
এসময় ঈমাম কাজীরা বলেন, কাজীরা কোন বাল্য বিয়ে পড়াতে না চাইলে সেই ক্ষেত্রে পরিবারের লোকজন অন্যত্র নিয়ে ভুয়া কাজী দিয়ে নকল বালাম ব্যবহার করে বিয়ে পড়ানো হচ্ছে। অনেক ক্ষেত্রে  ক্ষমতাশীল দলের প্রভাবে অনেক কাজীদের বিয়ে পরাতে বাধ্য করা হচ্ছে বলে জানান। তাই বাল্য বিয়ে রোধে পরিবার,জনপ্রতিনিধি সহ সকলেই  সচেতন হলে বাল্য বিয়ে কমিয়ে আনা সম্ভব বলে বক্তারা মত দেয়। এছাড়াও বাল্য বিয়ে নিরোধ আইন-২০১৭ সকল  ক্ষেত্রে  বাস্তবায়নের দাবী জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

ফেব্রুয়ারি ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« জানুয়ারি  
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।