সেদিন কি হয়েছিল, বর্ণনা দিলেন সিফাত

নিউজ ডেস্ক , আমাদের ভোলা.কম।

কক্সবাজারে পুলিশের গুলিতে মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যার দিন কি হয়েছিল তার বর্ণনা দিয়েছেন সিনহার সহযোগী এবং ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শাহাদুল ইসলাম সিফাত। তিনি জানান, সে দিন তাদের গাড়ির দিকে আসেন এসআই লিয়াকত। তিনি তাদের গাড়ির সামনে একটি ড্রাম রেখে দেন।

সিফাত বলেন, ‘এরপর আমি গাড়ি থেকে নেমে হেঁটে যাচ্ছিলাম। সিনহাও নেমে আসলেন। আমি তাকে বলতে শুনলাম, ”শান্ত হন, শান্ত হন…” এর কিছুক্ষণ পর আমি গুলির শব্দ শুনতে পাই।’ সিনহার মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশের করা মামলায় গ্রেপ্তার সিফাত ৩১ জুলাই রাতে জিজ্ঞাসাবাদে এসব বলেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের এ ভিডিও একটি টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচার হয়। ওই ভিডিওতে সে দিনের বিবরণ দিয়ে তিনি জানান, ‘সে দিন আমাদের হাতে ক্যামেরা ট্রায়পড ছিল। তবে তখন কেউ বুঝতে পারেনি সেটা ট্রায়পড ছিল। পাহাড় থেকে নামার সময় আমাদের কাছে কোনো অস্ত্রই চিল না।’

তিনি বলেন, ‘এরপর যখন আমরা চেকপোস্টে আসি তখন দায়িত্বরত পুলিশ আমাদের বলেন ঠিক আছে আপনারা যেতে পারেন। তখন তিনি (লিয়াকত) আমাদের দিকে আসেন। আমরা গাড়ির জানালার কাঁচ তুলতে গেলে তিনি থামতে বলেন এবং আবার আমাদের পরিচয় জানতে চান। আমরা নিজেদের পরিচয় দেখানোর পর তিনি গাড়ির সামনে একটি ড্রাম এনে রাখেন।’ এরপর সিফাত গুলির শব্দ শোনেন এবং সিনহাকে মাটিতে লুটিয়ে পড়তে দেখেন। সিফাত বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম গুলি হয়ত সিনহার গায়ে লাগেনি। ফাঁকা গুলি ছুড়েছে হয়ত। তখনই আমি খেয়াল করি সিনহা রক্তে ভেসে যাচ্ছে।’ তিনি জানান, ‘আমি নামার সময় দেখেছি সিনহা যখন গাড়ি থেকে নামছিলেন তখন তিনি তার পিস্তল গাড়িতে রেখে দিয়েছিলেন। তিনি মাথার ওপর দুই হাত তুলে গাড়ি থেকে নামেন। তবে গাড়ির পেছন দিকে থাকায় আমি তার পদক্ষেপ খেয়াল করতে পারিনি।’

সূত্র – bd24live.com

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

মে ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« এপ্রিল    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।