মনপুরায় রিকসা চালকের আকুতি: আমি বাচতে চাই, আমাকে বাচান

বিশেষ  প্রতিনিধি, আমাদের ভোলা.কম।
অভাব অনটনের সংসার। ৫ মাস বয়সের সময় বাবা মারা গেছেন। বাবাকেও দেখেনি। মা আদর করে ছোট শিশুর নাম রেখেছেন মামুন। সেই মামুন বড় হয়ে হাল ধরেছেন সংসারের। বিবাহ করেছেন। তার ২টি কন্যা সন্তান। বড় সন্তানের বয়স ৬বছর আর ছোট সন্তানের বয়স ২বছর। সংসারের একমাত্র উপার্জনকারী মামুন রিকসা চালিয়ে কোন মতে দিন কাটান।স্বামী ও স্ত্রী ও ২টি কন্যা সন্তান নিয়ে সংসার চালিয়ে ভালোই ছিলেন। মাথা গোজার ঠাই শুধু ঘর ছাড়া আর কিছুই নেই। বাবা,ভাই ,বোন কেউ নেই মামুনের। এলাকার মানুষের স্নেহ ও ভালোবাসায় বড় হয়েছেন মামুন। হাজির হাট ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মামন।

ভাগ্যের নির্মম পরিহাস উপজেলার হাজির হাট বাজারে ড্রেনের ভিতর পরে তার গলা ঘাড়ের হাড় ভেঙ্গে যায়। গলার ঘারের রগ ছিড়ে যায়। এলাকাবাসী ও স্থানীয়রা টাকা সংগ্রহ করে ঢাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠিয়েছেন। বর্তমানে ঢাকা ইবনেসিনা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার চিকিৎসার জন্য ৩লক্ষ টাকা প্রয়োজন। টাকার অভাবে এখন চিকিৎসা করাতে সমস্যা হচ্ছে। অপারেশন করাতে হবে। মামুনকে বাচাতে সমাজের ও দেশের বিত্তবানদের সহযোগীতা কামনা করছেন মামুনের অবুজ সন্তানেরা।এতিম গরীব অসহায় রিকসা চালক মামুনের আকুতি আমি বাচতে চাই। আমাকে বাচান। দেশের সকল বিত্তবানদের কাছে আমার আবেদন আমাকে আমার অবুজ শিশুসন্তানদের কাছে ফিরিয়ে দিন। আপনাদের একটু সহানুভুতি আর একটু সাহায্যই পারে আমার অবুজ দুইটি কন্যা সন্তানদের কাছে ফিরিয়ে দিতে।

দেশের উচ্চবিত্তদের একটু সাহায্যই পারে মামুনের মতো হাজারো মামুনের প্রান বাচাতে। দুইটি অবুঝ শিশুকে এতিম হওয়ার হাত থেকে বাচাতে। অবুঝ শিশু সন্তানের আকুতি মা ও মা বাবা আসবে কথন ? আপনাদের একটু সহানুভুতি আর সাহায্য ছাড়া

অবুঝ শিশুর প্রশ্নের জবাব দেওয়া সম্ভব না। আপনাদের সহানুভুতিই পারবে মামুন ও অবুঝ সন্তানদের মুখে হাসি ফুটাতে।
আপনি চাইলে সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে এতিম অসহায় গরীব রিকসা চালক মামুন ও তার অবুঝ শিশুসন্তান,মা ও পরিবারের মুখে হাসি ফুটাতে পারেন।

মামুনের জন্য
বিকাশ পার্সোনাল ০১৭২১-৯১৬৯৮৩
অথবা ০৪০৮১০০০০২৫১৩
সোনালী ব্যাংক
মনপুরা শাখা-ভোলা।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« আগষ্ট  
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!