ভোলায় বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে কাজী ও ইমামদের ভূমিকা বিষয়ক কর্মশালা

কাজী মহিবুল্লাহ আযাদ, আমাদের ভোলা .কম। 
ভোলায়  বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে ইমাম, কাজী ও জনপ্রতিনিধীদের ভূমিকা বিষয়ক কর্মশালা  অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার ( ২৬ আগষ্ট) ভোলা সদর উপজেলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নে রেড ক্রিসেন্ট ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের টেনিং সেন্টারে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
কর্মশালার অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন  জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: ইকবাল হোসেন। এসময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার মো: দেলোয়ার হোসেন।
ইউনিসেফ এর সহায়তায় কোস্ট ট্রাস্ট এর সমন্বিত শিশু বিবাহ রোধ কর্মসূচি (আইইসিএম) প্রকল্পের এর আয়োজনে সভায় কোস্ট ট্রাস্ট এর আইইসিএম প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী মো: মিজানুর রহমান এর সভাপত্বিতে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা টেনিং এন্ড মনিটরিং অফিসার মো: জিয়া উদ্দিন,আইসিএম প্রকল্পের সমাজসেবা কর্মী  মরিয়ম বেগম প্রমুখ।এসময় কর্মশালায় ভেদুরিয়া ও ভেলুমিয় ইউনিয়নের ইমাম,কাজীরা উপস্থিত ছিলেন।
কর্মাশালায় বক্তারা বলেন, স্থানীয় পর্যায়ে রাজনৈতিক ব্যক্তিরা ও জন প্রতিনিধীরা একটু সচেতন হয়ে দায়িত্ব পালন করলে গ্রাম-গঞ্জে বাল্য বিয়ে শূন্যের কোঠায় নিয়ে আসা সম্ভব। কাজীরা বাল্যবিয়ের বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করলেও অনেক সময় প্রভাবশালী ও রাজনৈতিক ব্যক্তিদের চাপে পরে তা পড়াতে হয়। কাজীরা  বিয়ে না পরালে তখন কাবিন না করে স্থানীয় ইমাদের দিয়ে বিয়ে পড়াচ্ছে। তাই বাল্য বিয়ে রোধে সবাইকে সচেতন হতে হবে। সবার সচেতনতাই পারে বাল্য বিয়ে রোধ করা সম্ভব।
এসময় কাজীরা বলেন, অনেকে ভুয়া জন্মনিবন্ধন এর কাগজ বানিয়ে নিয়ে আসে মেয়ের বিয়ে দেয়ার জন্য। তখন ঐ জন্মনিবন্ধনে দেখা যায় চেয়ারম্যান ও মেম্বার এর সাক্ষর রয়েছে। তাদের সাক্ষর দেখে আমরা বিয়ে পড়াচ্ছি। পড়ে দেখা যায় ভুয়া কাগজ।  এই ধরনের সনদের কারনে কাজীদের জেল জরিবান করা হচ্ছে। এর জন্য  চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের  সনদ দেয়ার ক্ষেত্রে আরো সচেতন হওয়ার আহবান জানায়।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০১৯
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।