মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স:) কে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে উত্তাল ভোলার রাজপথ

বিশেষ প্রতিনিধি, আমাদের ভোলা।

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) ও উম্মুল মুমিনিন হযরত আয়েশা (রা.)-কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দাল সম্প্রতি জঘন্যতম কটুক্তি করেছে। তাদের ওই কটুক্তির কারণে সমগ্র মুসলিম বিশ্বে নবী প্রেমি মুসলমানদের অন্তরে রক্তক্ষরণ হয়েছে। ওই কটুক্তির প্রতিবাদে বর্হিবিশ্বের বিভিন্ন দেশ কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় ভোলাতেও বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় বক্তারা জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাশ, নুপুর আক্তার ও নবীন কুমার জিন্দালকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং ভারতীয় পণ্য বয়কট করার আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ মিছিল উপলক্ষে শুক্রবার (১০ জুন) জুম’য়ার নামাজ শেষে ভোল সদর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন থেকে দল-মত নির্বিশেষ সকল মানুষ ভোলার কালিনাথ রায়ের বাজারস্থ হাটখোলা মসজিদ এর সামনে জড়ো হতে থাকে। এক সময় পুরো কালিনাথ রায়ের বাজার লোকে লোকারণ্যে পরিনত হয়। এ সময় “নারায়ে তাকবির, আল্লাহু আকবার’, ‘বিশ্ব নবীর অপমান, সইবে নারে মুসলমান, ‘ভারতের পণ্য বয়কট করুন, করতে হবে’ ‘নুপুর ও নবীন এর ফাঁসি চাই’ সহ বিভিন্ন শ্লোগানে প্রকম্পিত হতে থাকে ভোলার রাজপথ। বিক্ষোভপূর্ব সমাবেশে ভোলার ওলামায়ে মাশায়েখগণ বক্তব্য রাখেন।

বিক্ষোভ মিছিল পূর্বে বক্তব্য রাখেন দৈনিক আজকের ভোলা সম্পাদক আলহাজ্ব মুহাম্মদ শওকাত হোসেন, খলিফা পটি ফেরদৌস জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মোঃ মজির উদ্দিন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম নেতা মাওলানা ওবায়েদ বিন মোস্তফা, ভোলা দারুল হাদীস কামিল মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা মোবাশ্বির ইসলাম নাঈম, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর ভোলা মহাসচিব মাওলানা তাজউদ্দিন আহমদ ফারুকী, মাওলানা তরিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। অপরদিকে এই সমাবেশে কোন সমস্যা না হয় সেই জন্য জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। বক্তব্য শেষে কয়েক হাজার লোক হাটখোলা বাজারস্থ থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে ভোলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে খলিফাপট্টি ফেরদাউস জামে মসজিদের সামনে এসে শেষ হয়। সেখানে এক দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মোনাজত পরিচালনা করে খলিফাপট্টি ফেরদাউস জামে মসজিদের পেশ ঈমাম মুফতি মুজির উদ্দিন।

আমাদের দৌলতখান সংবাদদাতা জানান, বিশ্ব নবীর কটুক্তির প্রতিবাদে দৌলতখানের মিয়ারহাট বাজারে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফয়জুল উলুম মাদ্রার উদ্যোগে এ বিক্ষোভ মিছিলে দল-মত নির্বিশেষে সকল ধর্মপ্রাণ মানুষ অংশ গ্রহণ করে। এ সময় তারা বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। ফয়জুল উলুম মাদ্রার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাওলানা নোমান হোসেন কাশেমী বলেন, নুপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দালকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করে ইসলামী আইনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

আমাদের বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি জানান, মহানবীকে নিয়ে টুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বোরহানউদ্দিনের বিভিন্ন মসজিদের ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা। শুক্রবার বার (১০ই জুন) জুমা’বাদ ভারতে বিশ্ব নবীর বিরুদ্ধে কটুক্তির প্রতিবাদে বোরহানউদ্দিন পৌর বাজার, বোরহানগঞ্জ বাজার, হাসান নগর, কাজীর হাট, টবগী ইউনিয়ন ও বড়মানিকাসহ বিভিন্ন মসজিদের মুসল্লীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠনের নেতা-কর্মী সহ ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা এ প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ গ্রহণ করেন।

এ সময় উপস্থিত বক্তারা বলেন, বিজেপি নেতাদের অপমানজনক মন্তব্য বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ’র কলিজায় মারাত্মক ভাবে আঘাত হেনেছে। কোটি কোটি নবী প্রেমিকের অন্তরকে ক্ষতবিক্ষত করেছে। এই অবস্থায় কোন ঈমানদার চুপ করে ঘরে বসে থাকতে পারে না। ইতিমধ্যেই মুসলিম বিদ্বেষী ভারতের বিজেপি নেতাদের ইসলামের বিরুদ্ধে লাগামহীন বক্তব্য বিশ্বব্যাপী ধর্মীয় বিদ্বেষ উস্কে দিয়েছে। এ জঘন্য অপরাধের জন্য শুধু দল থেকে বহিষ্কার যথেষ্ট নয়। তাদের বক্তব্য প্রত্যাহার করে বিশ্ব মুসলমানদের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় মুসলিম বিশ্ব ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভারতকে সমুচিত জবাব দিতে বাধ্য হবে।

বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রীয় ভাবে নিন্দা জানানোর দাবী জানান এবং এই অপকর্মের জবাবে ভারতীয় পণ্য বয়কটের আহ্বান জানান তারা। মাওঃ মোঃ আবুল খায়ের হুজুরের সভাপতিত্বে ও মুফতি মাওঃ ফরিদ উদ্দিনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ভৈরবগঞ্জ ফাজিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাওঃ মোঃ মফিজল ইসলাম, খাসমহল দক্ষিণ মাথা জামে মসজিদের ঈমাম ও খতিব মাওঃ মোঃ মাকসুদুর রহমান ও খাসমহল উত্তর মাথা জামে মসজিদের ঈমাম ও খতিব হাফেজ মাওঃ মোঃ শাহীন আলম।

আমাদের লালমোহন প্রতিনিধি জাহিদ দুলাল জানান, ভারতে বিজেপি নেতৃবৃন্দ কর্তৃক মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এবং মা আয়েশা (রা:) কে নিয়ে অশালীন মন্তব্য ও কটূক্তির প্রতিবাদে ভোলার লালমোহনের বিক্ষোভ মিছিল করেছে ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা। শুক্রবার বিকালে উপজেলা পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়ন শাখা ‘বিশ্ব মুসলিম মিল্লাত’ এর ব্যানারে মুসল্লীরা এ বিক্ষোভ মিছিল করেন। মিছিলটি গজারিয়া ইসলামিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসা প্রাঙ্গন থেকে বের হয়ে সদর রোডে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন মুসল্লীরা।

বিশ্ব মুসলিম মিল্লাত পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়ন শাখার যুগ্ম আহবায়ক মো. আবু জাহেরের সঞ্চালনায় ও সদস্য মেহেদি আল ফোরকানের তত্ত্বাবধায়নে গজারিয়া ইসলামিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ মাও: আবু তাইয়্যেব, অধ্যক্ষ মাও: মো. রফিকুল ইসলাম, বিশ্ব মুসলিম মিল্লাত পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়ন শাখার আহবায়ক অধ্যাপক একেএম শহীদুল্লাহ সেলিম, পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ (পশ্চিম) শাখার সাধারণ সম্পাদক শাহীন মাতাব্বর, পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়ন যুবলীগ (পশ্চিম) শাখার সভাপতি মো. রুহুল আমিন ফরাজী, পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়ন যুবলীগ (পূর্ব) শাখার সাধারণ সম্পাদক শাকিল বেপারী গজারিয়া গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক মোঃ ফজলুর রহমানসহ আরও অনেকে এসময় বক্তব্য রাখেন।

এসময় বক্তারা সমাবেশে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) ও মা আয়েশা (রা:) কে নিয়ে অশালীন মন্তব্যকারী ভারতের বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও জিন্দালের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানায়। তা নাহলে বাংলাদেশে ভারতীয় পণ্য বর্জন করার হুঁশিয়ারিও দেন বক্তারা। এদিকে ভোলার চরফ্যাশন, তজুমদ্দিন এবং মনপুরা উপজলাতেও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানেও কয়েক হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমান বিক্ষোভ মিছিলে অংশগ্রণ করেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

জুন ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« মে  
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।