মোঃ আঃ কুদদূস এর কবিতা ” কৈফিয়ত “

ঝড়ে সব গেল উড়ে, রয়ে গেল পৈতৃক ভিটে,
দু’চোখ ভরা শুধু আঁধার,
স্বজনের মায়া খুঁজি, ছুঁয়ে কর মমতার তটে।
আঠালো মাটির বুকে, কত যে অমর স্মৃতি,
বুকের গহীন খাদের দীর্ঘশ্বাসে-
স্মরণে এসে হারায় সব যেন মায়া লজ্জাবতী।
সোদা মাটির গন্ধে, মিশে আছে শিকড়ের গল্প,
চোখের পলকে ভেসে বেড়ায়-
প্রিয়মুখের অজস্র হাসি, বেদনাটা হয়তো অল্প।
এই প্রাণে ঝলমল-প্রণয়ের আলেখ্য লেখা,
সহস্র প্রাণের নিরব অশ্রুজল-
মায়াবী সে সব মুখে, অজস্র প্রীতি দেখা।
ভিটে মাটির তটে-নিস্তব্দ মায়ার তরঙ্গ,
ইথারে ভেসে বেড়ায় বেদনা,
কালের খেয়া বয়, তবু সত্যটা মোর অনুসঙ্গ।
অদেখা সূতোয় বাঁধা, কিছু কালের কীর্তি,
জীবনের তট রেখায় স্বল্প বিন্দু,
শত ঝঞ্জায় বিমলিন, ওষ্ঠকোণে করুণ ফুর্তি।
চির বন্ধনে অটুট, সময়ের ঝড়ে সুস্থির,
পোড়া মাটির তৈজস সম
চিরায়ত ফ্রেমে বন্দি, সমসাময়িক যুধিষ্ঠির।
যাযাবরের পৃষ্ঠে সওয়ার, চলেছি অবিরত,
মরুভূমির মরীচিকা পশ্চাতে রেখে,
মরুঝড় আসবে-যাবে, যাত্রা হবে প্রতিনিয়ত।
ঝড়ে যদি ঝড়ে পড়ে, ভালোবাসার তরি,
কৈফিয়তে ছিদ্র করো না হৃদয়,
শক্ত হাতে নোঙর ধরো, সমুখে ঘোর শর্বরী।

৫ মে ২০১৯
ঢাকা

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« আগষ্ট  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।