ভোলায় গৃহবধূকে অমানবিক নিযার্তন, বাবা- ছেলে আটক

কাজী মহিবুল্লাহ আযাদ, আমাদের ভোলা.কম।

ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা ইউনিয়নে যৌতুকের দাবিতে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। আহত অবস্থায় বুধবার সকালে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত মুক্তা (২১)বাম পাশের চোখ মারাত্মক আঘাতের স্বীকার হয়েছে।
মুক্তার বাবা ফখরুল ইসলাম জানান ,২ বছর আগে ন্যাশনাল সার্ভিস এর আওতায় স্বাস্থ্য সহকারী শাকিল হোসেন এর সঙ্গে বিয়ে হয় ফরজানা ইয়াসমিন মুক্তার। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য বিভিন্ন সময় মুক্তার উপর নির্যাতন চালাতো হতো। মঙ্গলবার রাতে ৫০ হাজার টাকার জন্য চাপ দিয়ে আসছিলেন শাকিল। ঐ টাকা বাবা বাড়ী থেকে আনতে অস্বীকার করলে অমানষিক নির্যাতন করে শাকিল ও তার স্বজনরা। বেদম মারধর করে ঘরে আটকে রাখে স্বামী শাকিল ও তার পিতা কাদের ব্যাপারী সহ পরিবার লোকজন। পরে মুক্তার পরিবার খবর পেয়ে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ভোলা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছগির মিঞ্চা জানায় এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এই ঘটনায় সর্বশেষ পুলিশ শাকিল ও তার পিতা কাদের ব্যাপারীরে আটক করেছে। জড়িত অন্যদের আটকের ব্যপারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
এদিকে র্নিযাতনকারী শাকিল ও তার পিতাকে দ্রুত গ্রেফতার করায় ভোলা পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন কে সাধুবাদ জানিয়েছেন ভোলার সাধারন জনগন।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

ফেব্রুয়ারি ২০২৩
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জানুয়ারি    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।