চরফ্যাসনে রাইস মিল মালিক নিয়াজ গ্রেফতার

স্টাফ রিপোটার।

ভোলার চরফ্যাসন উপজেলায় ভিজিডির বস্তায় নিন্ম মানের চালে সাথে পুষ্টি মিশিয়ে বিতরণের অভিযোগে ভোলা অটো রাইস মিলের মালিক মো. জুলফিকার মাহমুদ নিয়াজকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার গভীর রাতে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নে অবস্থিত ভোলা অটো রাইস মিল থেকে আটক করা হয়। পরে বৃহষ্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

এ সময় চরফ্যাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা খাদ্য-নিয়ন্ত্রক ও পুলিশ গুদামে তল্লাশি চালিয়ে ২৬ বস্তা নিন্মমানের চাল জব্দ করেছে। এ ঘটনায় খাদ্য নিয়ন্ত্রক জাহিদুল ইসলাম বাদি হয়ে শশীভুষণ থানায় মিল মালিক জুলফিকার মাহমুদ নিয়াজকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে।

শশীভুষণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, মিলের মালিক জুলফিকার মাহমুদ নিয়াজ নিন্মমানের চালের সঙ্গে বিশ্ব খাদ্যপ্রকল্পের (ডব্লিউএফপি) পুষ্টি মিশিয়ে ভিজিডির বস্তায় ভরে বিলি করছিল।

বুধবার বিকেল থেকে রাত অবধি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিন, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জাহিদুল ইসলাম ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিজে শশীভুষণের রসুলপুরে অবস্থিত ভোলা অটো-রাইস মিলের গুদাম পরিদর্শন করে ২৬ বস্তা নিন্মমানের চাল জব্দ করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে নিয়াজের বিরুদ্ধে নিম্ন মানের খাবার সরবরাহ ও কালোবাজারির অভিযোগ রয়েছে কিন্তু বিগতদীন নিয়াজ তার প্রভাব বিস্তার করে এসব ভেজাল খাদ্যের ব্যবসা করে আসছিলো ।

ভোলা অটো রাইস মিলের ব্যবস্থাপক মো. বাবুল এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এটা ষড়যন্ত্র। বুধবার বিকালে প্রশাসন ও পুলিশ মিলের মালিককে আটক করেছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« আগষ্ট  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।