সন্তান জন্মদানে অক্ষমতার অপবাদে মহিপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধুর আত্মহত্যা

  রেজাউল করিম হিরা, মহিপুর থেকে ॥

পটুয়াখালী জেলা মহিপুর থানার ধুলাসারে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) রাতে এ ঘটনা ঘটে। সন্তান জন্মদানে অক্ষমতার অপবাদ সইতে না পেরে ধুলাসারে এক গৃহবধূ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সুরতহাল সম্পন্ন করে লাশ থানায় নিয়ে আসে।
মহিপুর থানা পুলিশ জানায়, দীর্ঘ ১৬ বছরের দাম্পত্য জীবনে গৃহবধূ শাহীনুর বেগম (৩৪) সন্তান জন্মদানে অক্ষম ছিলেন। এ নিয়ে প্রায়ই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটি হতো। আশা এনজিও কর্মী স্বামী জোবায়ের খান ধুলাসারের চাপলী বাজারে ইব্রাহিম খালাসির ভাড়া বাসায় থাকতেন। গত (১৮ এপ্রিল) বৃস্পতিবার বিকালে স্ত্রীর সাথে বাকবিত-ায় জড়ায়। এক পর্যায়ে ঘর থেকে বেরিয়ে যান জোবায়ের। সন্ধ্যার পরে পাশের ঘরের লোকজন গৃহবধূ শাহীনুরের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজা বন্ধ বাসার জানালা দিয়ে টর্চের আলোতে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে থাকতে দেখা যায়। ঘটনাস্থলে লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। আশা এনজিও কর্মী জোবায়ের খান দম্পতির বাড়ি পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলার চিকনিকান্দি এলাকায়।
মহিপুর থানার ওসি মোঃ সাইদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ করা হয়। পারিবারিক অশান্তি থেকে আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, বেসরকারি সংস্থা আশা অফিসে চাকরীর সুবাধে গত দেড় বছর ধরে স্ব-স্ত্রীকে নিয়ে ধুলাসারের চাপলী বাজার ভাড়া বাসায় বসবাস করছিলেন ওই দম্পতি। এ ঘটনায় মহিপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

ফেব্রুয়ারি ২০২৩
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জানুয়ারি    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।