ভোলায় মাছ ধরার অপরাধে ২৮ জেলের কারাদন্ড

জাফর ইকবাল, আমাদের ভোলা.কম।

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ ধরার অপরাধে ২৮ জেলেকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। শুক্রবার  (৫ এপ্রিল) ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: কামাল হোসেন এ দন্ড দেন। এ নিয়ে গত দুই দিনে ঘন্টায় ৬৭ জেলেকে কারাদন্ড দেয়া হলো।
সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে ১৫ জনের এক বছর জেল এবং ১৩ জনের এক মাস করে জেল দেয়া হয়। তারা হলেন, জসিম, রুবেল, মোশারেফ, মহিউদ্দিন, শিপন, ইয়াকুব, বেল্লাল, হারুন, ছিদ্দিক, মিছির, মহিউদ্দিন, মাইনুদ্দিন, মাইনুদ্দিন, আবদুল, মহিউদ্দিন। বাকিদের এক মাস কারাদ- দেয়া হয়। তাদের বাড়ি সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে।
ভোলা সদর সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো: আসাদুজ্জামান জানান, ভোলার মেঘনায় মাছের অভায়াশ্রমে জেলেরা যাতে ইলিশসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ শিকার করতে না পারে সে জন্য উপজেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে মৎস্য বিভাগ ও কোষ্টগার্ডের একটি যৌথ টিম নদীতে অভিযান চালায়।
এ সময় মেঘনার ভোলার খাল, নাছির মাঝি ও কোড়ার খাল সহ বিভিন্ন পয়েন্টে থেকে ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ১৫ কেজি সহ ১৫ জেলেকে আটক করা হয়। এছাড়া অপর অভিযানে আরো ১৩ সন্ধ্যায় আটক করা হয়। পরে তাদের ভ্রাম্যমান আদালতের সোপর্দ করা হল ১৫ জনের এক বছর ও ১৩ জনের এক মাস করে কারাদন্ড দেয়।
উল্লেখ্য, মার্চ-এপ্রিল দুই মাস ভোলার মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীর ১৯০ কিলোমিটার এলাকাকে অভায়াশ্রম হিসাবে ঘোষনা করা করায় সকল ধরনের মাছ ধরা বন্ধ করেছে মৎস্য বিভাগ।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« আগষ্ট  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।