পরীক্ষামূলক ওষুধ রেমডেসিভিরে দ্রুত সুস্থ হচ্ছে করোনা রোগীরা

নিউজ ডেস্ক , আমাদের ভোলা.কম।
পরীক্ষামূলক একটি ওষুধ রেমডেসিভিরে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছে করোনা রোগীরা। এই ওষুধের ট্রায়ালের কথোপকথনের একটি ভিডিও’র ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার এমন খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন।
ওই ট্রায়ালের নেতৃত্ব দেয়া ডাক্তারের বরাত দিয়ে স্ট্যাট নিউজ জানিয়েছে, ওষুধটির ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ ব্যক্তিদের সবারই শ্বাসকষ্টের গুরুতর লক্ষণ এবং জ্বর ছিল; কিন্তু এক সপ্তাহের কম চিকিৎসায় তারা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন।ওই ট্রায়ালের নেতৃত্ব দিচ্ছেন শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ক্যাথলিন মুলেন। ভিডিওতে তিনি বলেন, ভালো খবর হচ্ছে যে, আমাদের অনেক রোগীই বাড়ি ফিরে গেছেন, যেটা খুব দারুণ। আমাদের মাত্র দুজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, মুলেন যে কথা বলছেন তাতে তিনি আংশিক তথ্য দিয়েছেন। তারা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, চলমান একটি ক্লিনিকাল ট্রায়াল থেকে আংশিক তথ্য সংজ্ঞাগতভাবে অসম্পূর্ণ এবং সম্ভাব্য চিকিৎসার সুরক্ষা বা কার্যকারিতা সম্পর্কে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে ব্যবহার করা উচিত হবে না।তারা জানিয়েছে, এক্ষেত্রে গবেষণা সহকর্মীদের একটি অভ্যন্তরীণ ফোরামের তথ্য অনুমোদন ছাড়াই প্রকাশ করা হয়েছে। এই মুহূর্তে কোনও সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়া অপরিপক্ক এবং বৈজ্ঞানিকভাবে সঠিক নয়।এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাসের কোনও অনুমোদিত থেরাপি নেই। এই ভাইরাসে আক্রান্ত কিছু ব্যক্তির ক্ষেত্রে মারাত্মক নিউমোনিয়া এবং অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ডিস্ট্রেস সিন্ড্রোম দেখা দিতে পারে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব হেলথ রেমডেসিভির ছাড়াও আরও কয়েকটি ওষুধ দিয়ে করোনার চিকিৎসার ট্রায়াল চালাচ্ছে।গিলিয়েড সায়েন্সেস এই ওষুধটি তৈরি করেছিল। এটি ইবোলার চিকিৎসায় খুব একটা সফল না হলেও প্রাণীদের ওপর পরিচালিত একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে যে, এটি করোনাভাইরাসের সঙ্গে সম্পর্কিত সার্স (সিভিয়ার অ্যাকিউট রেসপিরেটরি সিন্ড্রোম) ও মার্স (মিডল ইস্ট রেসপিরেটরি সিন্ড্রোম) প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় কার্যকর হতে পারে।এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছিল যে, করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় সম্ভাবনা দেখিয়েছে রেমডেসিভির।
সূত্র- আরটিভি অনলাইন সিএনএন থেকে নেয়া

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

জুন ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« মে    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।