লঞ্চের ধাক্কায় নিখোঁজ ভোলার জাহাঙ্গীরের মাথাহীন দেহ উদ্ধার

নিউজ ডেস্ক, আমাদের ভোলা.কম।

চাঁদপুরের মেঘনায় যাত্রীবাহী ময়ূর-৭ লঞ্চের ধাক্কায় নিখোঁজ স্পিডবোট চালক জাহাঙ্গীরের (৩৫) মাথা ও হাত-পাহীন মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (২৫ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টায় চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল লাশটি উদ্ধার করে। নিহত জাহাঙ্গীরের বাড়ি ভোলা জেলায়।

এর আগে, মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে স্পিডবোটটি যাত্রী নিতে এসে ময়ূর-৭ লঞ্চের ধাক্কায় নদীতে যুব যায়।

নিহত জাহাঙ্গীরের বড় ভাই মো. আলাউদ্দিন জানান, তার ভাই মঙ্গলবার দুপুরে ভোলা থেকে চাঁদপুর লঞ্চঘাটে যান ঢাকা থেকে আসা তার এক আত্মীয়কে রিসিভ করার জন্য। বিকাল সাড়ে ৫টার সময়ে ঢাকা থেকে চাঁদপুর লঞ্চ ঘাটে যাত্রী নামিয়ে ফিরে যাওয়া এমবি ময়ূর-৭ লঞ্চের পেছনে পাখার সঙ্গে ধাক্কা লেগে ডুবে যায় স্পিডবোটি। বোটে থাকা জাহাঙ্গীরের ভাতিজা আরিফ (১৮) নদী সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও লঞ্চের পাখার আঘাতে দ্বিখণ্ডিত হয়ে জাহাঙ্গীর নদীতে তলীয়ে যান।

উদ্ধার হওয়া আরিফও একই তথ্য জানিয়েছেন।

খবর পেয়ে চাঁদপুর থানার পুলিশ এবং ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের ডুবরি দল লাশ উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। বুধবার সকালে দ্বিখণ্ডিত দেহ উদ্ধার করতে সক্ষম হয় তারা। চাঁদপুর নৌ ফায়ার সার্ভিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোছলেম মিয়াজী এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

চাঁদপুর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম জানান, ঘটনার পরেই আমাদের নৌ পুলিশ সদস্য এবং চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল লাশটি উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়েছে। আজ লাশটি উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

এপ্রিল ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« মার্চ  
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।