ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তত ভোলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

মোঃ আরিয়ান আরিফ, আমাদের ভোলা.কম।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস-২০১৯ উদযাপনে প্রস্তুত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। আর  মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাকি। তারপরই একুশের প্রথম প্রহরে  থেকে শুরু হবে ভাষা শহীদদের প্রতি সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। ইতিমধ্যে ভোলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারও নিশিদ্র নিরাপত্তার  প্রস্তুুত রাখা হয়েছে। এরই মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পুরো শহীদ মিনার এলাকা নিয়ন্ত্রণে নিয়েছেন। আজ বুধবার বিকালে সরেজমিনে  ঘুরে দেখা যায় যে, ভোলা সরকারি স্কুল মাঠে শহীদ মিনারে শেষ সময়ের ঝাড়ু, ধোয়া- মোছা ও রংয়ের কাজ শেষ। পুরো এলাকায় টহল দিচ্ছে পুলিশ। গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা সাদা পোশাকে নজরদারি করছেন। ব্যবস্থা করা হয়েছে পর্যাপ্ত লাইটিং।
জেলা প্রশাসক মো: মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেন, ভোলা সরকারি স্কুল মাঠে জেলার  কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচ্ছন্নতার  কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এরই মধ্যে শহীদ মিনারে সূর্য বসানো হয়েছে। আমাদের সব প্রতুতি সম্পন্ন, শহীদ মিনার এখন শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুুত। শহীদ মিনারে রাত ১২.১ মিনিটে থেকে শুরু করে সকাল পর্যন্ত সরকারি, বে-সরকারি, মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক দলের সদস্যরা ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা শ্রদ্ধা নিবেদন করবে। আর শহীদ মিনার কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা  বাহিনীর  নিরাপত্তা ঠিক রাখার জন্য  সমন্বয় করতে কাজ করবে।
একুশের প্রথম প্রহরে ভোলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন করে বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলনে নিহত বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন জেলা প্রশাসক, জেলা ও দায়রা জজ, পুলিশ সুপার সহ গণ্যমান্য ব্যক্তি এবং বিভিন্ন সংগঠন। এরপর সাধারণ মানুষের ঢল নামবে শহীদ মিনারে। শ্রদ্ধার অর্ঘে ঢেকে যাবে শহীদ  বেদি।

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« আগষ্ট  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।