মামলা চলমান অবস্হায় জেনারেল হাসপাতালের নামে জমি দখলের পায়তারা

এম আবু সিদ্দিক, বিশেষ প্রতিনিধি:

ভোলার চরফ্যাশন আদালতে মামলা চলমান অবস্হায় চরফ্যাশন জেনারেল হাসপাতালের নামে রেকর্ডীয় অন্যের জমি দখলের পায়তারা চলছে৷এ ব্যাপারে গত ১৯জানুয়ারি ২১ তারিখে জমির প্রকৃত মালিকানা দাবি করে আবু তাহের তালুকদার বাদি হয়ে চরফ্যাশন যুগ্ন জজ (২য়) আদালতে বিবাদি মোঃমিজানুর রহমান,ইকবাল হোসেন, দিলারা বেগম, মোস্তাফিজুর রহমান ও নাজমাকে বিবাদি করে বিগত ১৮.১.২১ তারিখে পৃথক ৪ দলিলে ৪৫.৫০ শতাংশ জমির দলিল বাতিলের জন্য দেওয়ানী ৫৫-২০ইং নং মোকদ্দমা দায়ের করেন৷ বিরোধীয় জমিতে গত ২৬ জানুয়ারি বিবাদিরা প্রভাব বিস্তার করে জমি নিয়ে চলমান মামলা গোপন রেখে স্হানীয় সংসদ সদস্যকে দিয়ে চরফ্যাশন জেনারেল হাসপাতাল নামে একটি সেবামুলক প্রতিস্ঠানের নামফলক উম্মোচনে বাধ্য করায়৷এব্যাপারে সংসদ সদস্যের কাছে মামলার সকল কার্যক্রম গোপন রাখা হয়েছিল৷ এরপর বিরোধীয় জমিতে জোড়পূর্বক পাকা স্হাপনা বন্ধে মামলার বাদি আবু তাহের তালুকদার ২৮ জানুয়ারি২১ বৃহস্পতিবার চরফ্যাশন যুগ্ন জজ আদালতে আদেশের জন্য একটি আবেদন করেছেন৷ মামলার বিবরনে জানা যায় ১৯৫৯ সনে তৎকালীন বরিশাল ২য় সাব জজ আদালতে দেওয়ানী মোকাদ্দমা ২৩৯-৫৯ইং সনে চরফ্যাশনের সমাজসেবী মুকবুল আহম্মেদ খান ও সমাজসেবি আবুল হাশেম মাস্টার বাদী হযে সন্তোষ কুমার গংদের বিবাদি করে ১৫ একর ০৭ শতাংশ জমি ৩০.৯.৫৯ ইং সনে ২৩৭-৫৯ ইং মোকাদ্দমায় চুড়ান্ত রায়ে ডিগ্রী অনুবলে মুকবুল আহম্মদ খান ও আবুল হাশেম মাস্টারের নামে ৫৪ ধারায় ৩৫৭১এফ-৫৯ মিসকেইচে বিগত ২রা জানুয়ারি ১৯৬১ সনে এস,এ ২৮০ নং খতিয়ানে ১৫ একর ৭ শতাংশ জমি আটআনা অংশহারে মুকবুল আহম্মদ খান ও আবুল হাশেম মাস্টারের নামে রেকর্ড হয়৷ এরমধ্যে এলএ কেইসের অনুবলে এফ ৪৭- ৬৪.৬৫ ইং সনে চরফ্যাশন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নামে ৩ একর জমি অধিগ্রহন করা হয়৷পাউবির নামে একুজেশনের পরে ৩ একরের জমির টাকা মুকবুল আহম্মদ খান গ্রহন করেন৷ এদিকে উক্ত জমির মালিক স্বত্ব হওয়ার পরে ১৯৬০ সনে বিধিভঙ্গ করে উক্ত জমি মুকবুল আহম্মদ খান তার স্ত্রী জয়গুন বিবির নামে একটি দলিল সম্পাদান করে৷ তার স্বামী নিদিস্ট মেয়াদের পূর্বে উক্ত জমির রাজস্ব (খাজনা) অনাদায়ে নিলামে অংশ নিয়ে ৪.৫৩ জমি স্ত্রীর নামে জমি দলিল করে দেয়ায় জমি হস্তান্তর দলিল আইনে বিধি লঙ্গন হওয়ায় উক্ত জমির কোন বৈধতা নেই জয়গুন বিবির৷ মামলার বাদি আবু তাহের তালুকদার বলেন, উক্ত জমির মালিকানা স্বত্ব নেই মুকবুল আহম্মদ খনের কোন ওয়ারিশদের৷ মামলার পরে অতি সম্প্রতি প্রধান বিবাদি নজরুল ইসলাম খান মিন্টু মারা যাওয়ায় পর উক্ত জমিতে অন্যান্য বিবাদি উৎপর হয়ে উঠে৷ এরপরে গত ২৬ জানুয়ারি চরফ্যাশন জেনারেল হাসপাতাল নামে নামফলন উম্মোচন করে বিরোধীয় ও চরফ্যাশন আদালতে মামলা চলমান অবস্হায় জমি দখলের পায়তারা চালচ্ছে৷

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

জুলাই ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।