কবি মোঃ আঃ কুদদূস এর কবিতা “কয়লা”

ভিতরে ভিতরে পুড়ে পুড়ে হই

বিদগ্ধ, কালো কয়লা
তুমি বুঝবে না, বুঝবে না তুমি,
বেদনায় ভরা অবহেলা।
আগুনেও পুড়ি, জলেও পুড়ি
ভিতরে ভিতরে পুড়ে ছাই
কয়লার বরণ হৃদয় আমাদের
আবয়বে বুঝার উপায় নাই।

হাসি-খেলি ঘুরে-চলি সমাদরে
মুখে থাকে কত সুখের ভাব
জিন্দেগী মোর কেটে যায় নিরবে
সাথী হয়ে অনাদরের সব।
জীবনের সাথে এভাবে আমাদের
সারা দিনমান চলে ছলনা
যা সত্য, তা ছাড়া সদা সর্বদা
করে যাই, মিথ্যা প্রবঞ্চনা।

দিবসেও পুড়ি রজনিতেও পুড়ি
পুড়ে পুড়ে হই কঙ্কাল
সোনা পুড়িলে নাকি খাঁটি হয়
কিন্তু আমি থাকি অবিকল।
পুড়ে পুড়ে অঙ্গার হলেও আমি
নিশ্চুপ নিঃশব্দে হাসি
কয়লার মত কালো হলেও মোর
ভিতরটা সাদা রাশি রাশি।

ছলনার আগুনে পুড়ে যাওয়া
এই বুকের পাঁজরখানি
বেদনার নীল কষ্টে ছটফট করে
নিঃশেষ ফেলবে এখনই।
তবুও বাঁচি, তবু স্বপ্নে জাল বুনি
কাতুরে চোখের জলে
এক জীবনে- কি জীবনের সব
চাওয়া-পাওয়া মেলে?

১৪ জানুয়ারি ২০১৯
সমিল মুক্তক ছন্দ

ফেসবুকে লাইক দিন

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« সেপ্টেম্বর  
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১ 

সর্বমোট ভিজিটর

counter
এই সাইটের কোন লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ!
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।